পরিবর্তন প্রয়োজন-গণতন্ত্রের স্বার্থে ড: কামাল

প্রবীণ রাজনীতিবিদ ড. কামাল হোসেন বলেছেন, এদেশ আমাদের সকলের, এদেশের উজ্জল ভবিষ্যৎ সবাই চান। দেশের ভবিষ্যতের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য পরিবর্তন আনার প্রয়োজন। এই পরিবর্তনের  উল্টাপথে যারা, তাদের হাত থেকে মুক্ত করা প্রয়োজন।  সবাই সংঘবদ্ধ হলেই হবে- তারা এতো শক্তিশালী নয়। এখানে কোন শক্তি নাই যে, আমাদের মেরে পরাধীন করে রাখবে।

রাজধানীতে আজ জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
জাতীয় প্রেস ক্লাব কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় দেশের মালিক জনগণের করণীয়’ শীর্ষক এ আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, গণস্বাস্থ্যের ট্রাষ্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মাহবুব হোসেন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ঢাকা মহানগর গণফোরাম সভাপতি মোস্তাক আহমদ প্রমুখ।

ড. কামাল হোসেন সাম্প্রতিক ছাত্র আন্দোলনের কথা উল্লেখ করে বলেন, তারা কী চেয়েছে, ন্যায় চেয়েছে। তারা কোন নেতার জন্য অপেক্ষা করেনি। এক নেতা খোঁজা ভুল জিনিস। সবার মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা আছে। সবার মাঝে উদ্যোতা হিসেবে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা আছে। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর মুক্তির জন্য অপেক্ষা করলে স্বাধীনতা আসতো না।

তিনি বলেন, যে যতটুকু অবদান রাখতে পারেন, উদ্যোগ নেন, দেশের উজ্জল ভবিষ্যতের জন্য আজ পরিবর্তন আনা প্রয়োজন। কারণ সবাই চায় পরিবর্তন, সবাই চায় সুশাসন, সবাই চায় গণতন্ত্র। তাহলে বাধা কোথায়?
যারা সুবিধা পাচ্ছে-ভোগ করছে, তারাই বাধা। দেশ গড়ার জন্য দেশ রক্ষার জন্য কারো অনুমোদন লাগে না।

এ সময় তিনি নব্বইয়ের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, অন্যায় যখন সহ্যের সীমা পার হয়ে যায়, তখন বাঙালী ঐক্যবদ্ধ হয়ে রুখে দাঁড়ায়।

তিনি আরো বলেন, জনগণের যে শক্তি-বঙ্গবন্ধু শিখিয়েছেন, সেটা নিয়েই হয় গণতন্ত্র। কোন ব্যক্তিকে কেন্দ্র করে গণতন্ত্র হয় না। আমি নয়, আমির বদলে আমরা বলতে হবে। তাহলে আমরা অবশ্যই পারবো। আবার ২০০৮ সালের মতো গণতন্ত্রের বিজয় অর্জন করা সম্ভব বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

Leave a Response