বাংলাদেশী নারীর শ্লীলতাহানী ও স্বেচ্ছাচারীতার অভিযোগে বহিস্কৃত ফ্লোরিডার আলী আশরাফ,সভাপতি এম রহমান জাহিরকে কারন দশাও নোটিস

935

যুক্তরাস্ট্র প্রতিনিধি: ফ্লোরিডার তথা যুক্তরাষ্টের সব চেয়ে বড় সংগঠন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ ফ্লোরিডা এর সাধারণ সম্পাদক জনাব আলী আহমেদ আশরাফের বিরুদ্ধে সংগঠন এর শৃঙ্খলা ভঙ্গ ,নারীদের সাথে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে ,

জানাযায় এক অনুষ্ঠান চলাকালে বাংলাদেশী নারী মন্চে উঠতে গেলে আলী আহমেদ আশরাফ নারীদের শরীরে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে,তাছাড়া স্বেচ্ছাচারিতা এবং ক্ষমতার অপব্যাবহার এর দায়ে  বহিস্কার করা হয়েছে বলে জানায় ফ্লোরিডার বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ  । অভিযোগ রয়েছে  এর আগে  বহিস্কৃত আলী আহমেদ আশরাফ  যুক্তরাষ্টে নিযুক্ত বাংলাদেশী এম্বাসেডর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে   বিশৃংঙ্খলা  করে এম্বাসেডরসহ ৫ জন মেয়র ২ জন কাউন্টি কমিশনার এর সামনে চরম অসৌজন্যমূলক আচরন করেন  যেটাতে প্রমান হয়  বাংলাদেশীদের ভাবমূর্তি বিদেশি ডিপ্লোম্যাটদের সামনে ধ্বংস করেন বলে অভিযোগ । 

এরপর থেকেই ফ্লরিডার  প্রায় সকল সংগঠন আলী আহমেদ আশরাফের এইসব কর্মকান্ডের জন্য বিচারের দাবি করে আসছিলো।

গত পহেলা জুলাই ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০০ টা বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ ফ্লোরিডার একটি সাধারণ সভা আয়োজন করে উক্ত সভায় সাধারণ সম্পাদক এর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ এর ভিত্তিতে তাকে সংগঠন এর সাধারণ সম্পাদক পদ , ডিরেক্টর পদ ও সদস্য পদ থেকে তাকে বহিস্কার করা হয়েছে বলে জানাযায়।  এবং ফ্লোরিডার তথা যুক্তরাষ্ট্রের সকল প্রবাসী বাঙালির সংগঠন বাংলাদেশ  এসোসিয়েশন অফ ফ্লোরিডা সংক্রান্ত কোনো বেপারে তার সাথে কোনো আলোচনা বা লেনদেন থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করেছে কার্যনির্বাহী কমিটি। 

এরপর একই সভায়  বর্তমান  সভাপতি জনাব এম রহমান জাহির  এর দুর্নীতি , সেচ্চারিতা , বেপারেও আলোচনা হয় এবং সভায় সভাপতির পদ থেকে তাকে কেন বহিস্কার করা হবে না তা ১ মাসের মধ্যে লিখিত ভাবে জানানোর জন্য বলা হয়। 

অভিযুক্ত আরিফ আহমেদ আশরাফ ফ্লোরিডা তে জামাত ও বিনপি পন্থী রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলো বলে জানাযায়, বাংলাদেশ এর মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধী শক্তি রাজাকারের পরিবারের ছেলে , তার পিতা মাওলানা মঈনুদ্দিন হোক , ফটিক ছড়ি ১৫ নং  নানুপুর ইউনিয়ন   একজন তালিকা ভুক্ত রাজাকার এবং শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান ছিলো বলে জানায় ফ্লোরিডায় বসবাসরত বাংলাদেশীরা। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here