জার্মানী আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারন সম্পাদককে সাত দিনের আল্টিমেটাম

জার্মান প্রতিবেদক: গত ০৯-০৯-২০১৮ তারিখ জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্ট শহরে  জার্মান আওয়ামী লীগের  জরুরী এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে নেতারা  বর্তমান মেয়াদ উত্তির্ণ জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি আর সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক অনিয়মাবলি এবং সংগঠনের ভাবমূর্তি লংঘনের গুরুতর অভিযোগ আনেন।  সংবাদ সম্মেলনে তারা অভিযোগ করেন,বর্তমান সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক  প্রতারণা  মাধ্যমে  জার্মানির বিপুল সংখ্যক আওয়ামী নেতা কর্মীদের পাশ কাটিয়ে তাদের অবধৈ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

তাছাড়া বাংলাদেশে বসবাস করে ধান্দা বাণিজ্য করে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা ও ভারপ্রাপ্তদের দিয়ে দল পরিচালনা করা , পূর্ণাঙ্গ কমিটি প্রকাশ না করে পদ বাণিজ্য করে হাইব্রিড ও বিএনপি জামাতের লোকদের কাছে পদ বিক্রি করা , নিজেদের খেয়াল খুশিমত কাউকে দল থেকে বহিস্কার করা বা পদায়ন করা , ঢাকা এয়ারপোর্টে অস্র কেলেন্কারি , ঢাকায় হোটেল ব্যবসায় মাদক ও নারীদের দেহ ব্যবসা কেলেন্কারির সাথে সম্মৃক্ত থেকে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা, এস এস এফ কর্তৃক ঘোষিত নেত্রীর নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরুপ জনৈক ব্যক্তিকে অর্থের বিনিময়ে দলে পদ দেয়া , কমিটির মেয়াদ উত্তির্ণ হওয়ার পরও বার বার সন্মেলন দেওয়ার জন্য দলীয় নেতা কর্মীরা চাপ দিলেও নানা টালবাহানা করে সন্মেলন না দিয়ে কথায় কথায় নেত্রীর নাম ব্যবহার করে অসাংগঠনিক , অনিয়মতান্ত্রীক ও অবৈধভাবে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে বাংলাদেশে পদবাণিজ্য করে বেড়ানোর ফলে দিন দিন সংগঠনের কর্মকান্ড জিমিয়ে পড়েছে এবং দলীয় নেতা কর্মীরা হতাশ হয়ে পড়েছে  বলেও অভিয্োগ করা হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ জানান,  কেউ দলীয় পদ ব্যবহার করে দেশে অবৈধ  ব্যবসা  বাণিজ্যে যারা ব্যাস্ত তাদেরকে মুজিব আদর্শের সৈনিকেরা দলের নেতৃত্বে দেখতে চায় না জার্মান আওয়ামীলগের নেতা কর্মীরা। সম্মেলনে  জার্মানিতে দীর্ঘদিন অনুপস্থিত দলীয় সভাপতি আর সাধারণ সম্পাদককে উত্থাপিত অভিযোগ সমুহের জবাব দলের নেতা কর্মীদের কাছে দেয়ার জন্য দুই সপ্তাহের আল্টিমেটাম দেয়া হয়। নতুবা আগামী ৭ই অক্টোবর জার্মানিতে স্থায়ীভাবে বসবাসকারী বংগবন্ধু সৈনিকেরা সাংগঠনিকভাবে সমাঝোতার ভিত্তিতে একটি জার্মান আওয়ামী লীগ গঠনের লক্ষ্যে একত্রিত হবে এবং ভবিষ্যতের করণীয় ব্যাপারে বিজেদের চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহন করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে জার্মান আওয়ামী নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপদেষ্টা জনাব মহসিন হায়দার মণি, উপদেষ্টা জনাব সৈয়দ আহমেদ সেলিম,উপদেষ্টা জনাববাবুল তালুকদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব মান্নান, সিনিয়র সহ সভাপতি জনাব নাসির উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব জাহিদুল ইসলাম পুলক, যুগ্ম সাধারণ জনাব খালেদ ইসলাম,আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক জনাব নোমান হামিদ, আওয়ামী লীগ নেতা জনাব হাফিজুর রহমান আলম,জনাব মাহফুজ ফারুক, জনাব শফিকুর রহমান,জনাব সগীর খান সপন, মোঃ রিপন,মোঃ জালাল, জার্মানি যুবলীগের সভাপতি আমানুল্লাহ ইসলাম,সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল আলম,সেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃবৃন্দ, জাতীয় রাসেল পরিষদের সভাপতি জনাব কাইয়ুম চৌধুরী সহ অনেক নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন। জার্মানির বিভিন্ন প্রদেশের কেন্দ্রীয় এবং প্রদেশিক নেতৃবৃন্দরা টেলি যোগাযোগের মাধ্যমে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য প্রদান করেন। মূল লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা, ঢাকা মহানগর উঃ ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি, ঢাকা নিউ মডেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নির্বাচিত সাবেক ভিপি বর্তমান সময়ের জার্মান আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ নেতা জনাব জাহিদুল ইসলাম পুলক।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *