হার্ভি ওয়াইনস্টিনের ২৩ বছর জেল

ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়নে দোষি সাব্যস্ত ‘হলিউড মোগল’ হার্ভি ওয়াইনস্টিনকে ২৩ বছর জেলের ঘানি টানতে হবে।

ধর্ষণের একটি এবং যৌন নিপীড়নের একটি অপরাধে গত মাসে দোষি সাব্যস্ত করে ১১ মার্চ দণ্ড ঘোষণার দিন ঠিক করে দিয়েছিল নিউ ইয়র্কের আদালত।

সে অনুযায়ী বুধবার ২৩ বছরের দণ্ডাদেশ বিচারক ঘোষণা করেন বলে গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

গার্ডিয়ান লিখেছে, ৬৭ বছর বয়সী বন্দি ওয়াইনস্টিন হুইল চেয়ারে বসে আদালতে উপস্থিত হন। তার দুটি অপরাধের অভিযোগকারী দুজনও আদালতে ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি সাইরাস ভান্সের পাশেই উপস্থিত ছিলেন।

এদের একজন মিরিয়াম হ্যালি; ওয়াইনস্টিনের ‘প্রডাকশন সহকারী’ হিসেবে ‘বস’র বিরুদ্ধে ‘ওরাল সেক্সে’ বাধ্য করার অভিযোগ এনেছিলেন তিনি।

ধর্ষণের অভিযোগ যিনি করেছিলেন, তিনি তার নাম প্রকাশ করতে সম্মতি না দেওয়ায় তা প্রকাশ করেনি গার্ডিয়ান।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের যে দুই সাংবাদিক ওয়াইনস্টিনের গোমর ফাঁস করে মি টু আন্দোলনের পথ তৈরি করে দিয়েছিলেন, সেই জোডি ক্যান্টর ও মেগান থোয়েও ছিলেন আদালতে।

দণ্ড ঘোষণার পর অভিযোগকারী দুজনসহ তাদের সঙ্গী অন্য নারীরা এজলাসেই উল্লাস প্রকাশ করেন বলে গার্ডিয়ান জানায়।

অভিযোগকারী দুজন ওয়াইনস্টাইনের সর্বোচ্চ সাজা চেয়েছিলেন। আইনে ধর্ষণের এক ধারায় এবং যৌন নিপীড়নের আরেকটি ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি হলে তার ২৯ বছর কারাদণ্ড হত বলে জানিয়েছে গার্ডিয়ান।

অন্যদিকে ওয়াইনস্টিনের আইনজীবী তার মক্কেলের বয়সের দিকটি তুলে ধরে কম শাস্তি দিতে বিচারকদের কাছে আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, পাঁচ বছরের সাজাও ওয়াইনস্টিনের জন্য ‘আজীবন কারাদণ্ড’ হয়ে দাঁড়াবে।

বুধবার প্রথমবারের মতো আদালতে বক্তব্য দিয়ে ওয়াইনস্টিন অপরাধকর্মের স্বীকারোক্তি দিলেও বলেন, যা ঘটে গেল, তাতে তিনি হতভম্ব।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা ওয়াইনস্টিনের দীর্ঘদিন চালিয়ে যাওয়া অপরাধকর্মের জন্য তার সর্বোচ্চ শাস্তিই চেয়েছিল।

হলিউডের বিখ্যাত প্রযোজনা সংস্থা ওয়াইনস্টিনের কো-চেয়ারম্যান এবং মিরাম্যাক্স ফিল্মসের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন ওয়াইনস্টিন।

দ্য কিংস স্পিচ, শেকসপিয়র ইন লাভ, পাল্প ফিকশন, গ্যাংস অব নিউ ইয়র্ক, ম্যালেনার মতো বহু জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের প্রযোজনা করেছেন তিনি। ওয়াইনস্টিনের সিনেমা এ পর্যন্ত তিনশ’র বেশি অস্কার মনোনয়ন পেয়েছে, জিতেছে ৮১টি অস্কার।

মি টু আন্দোলন শুরুর পর অন্তত ৮০ জন নারী ওয়াইনস্টিনের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনেন। প্রভাবের জোরে তিনি কয়েক দশক ধরে এই অপকর্ম চালিয়ে আসছিলেন বলে অভিযোগ তাদের।

অভিযোগকারীদের মধ্যে গিনেথ প্যালট্রো, উমা থারম্যান, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও সালমা হায়েকের মতো তারকা অভিনেত্রীরাও রয়েছেন।

তবে ওয়াইনস্টিনের দাবি, অনুমতি ছাড়া কারও সঙ্গেই তার যৌন সম্পর্ক ছিল না।

ওয়াইনস্টিন সব অভিযোগ অস্বীকার করলেও তাকে ২০০৬ সালে সাবেক প্রোডাকশন অ্যাসিসট্যান্ট মিরিয়াম হাইলিকে যৌন নিপীড়ন এবং ২০১৩ সালে আরেক অভিনেত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।  

এটাই শেষ নয়, ওয়াইনস্টিনের বিরুদ্ধে ২০১৩ সালে দুই নারীকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে লস অ্যঞ্জেলসের আদালতে আরও দুটি মামলা ঝুলছে।

যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠার পর ওয়াইনস্টিনকে নিজের প্রযোজনা সংস্থা থেকেও বরখাস্ত হতে হয়েছে। বহিষ্কৃত হয়েছেন মর্যাদাপূর্ণ অস্কার বোর্ড থেকেও।

Leave a Response