ফ্লোরিডায় জমকালো আয়োজনের মধ্যেদিয়ে শারদীয় দুর্গাপূজা পালন।

ফ্লোরিডা প্রতিনিধি: হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। সারা বছর বিভিন্ন দেবদেবীর পূজা হয়। তার মধ্যে দুর্গাপূজা বাঙালির সেরা উৎসব। এই পূজা শুধু মূর্তি পূজা নয়; এই পূজা দেবী দুর্গা পূজা। এই পূজায় দেবীকে স্বর্গ থেকে নেমে মর্তে এনে পূজা করা হয়। বহুদিন ধরে বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের মনে একটা দাগ কেটে গিয়েছে যা পরে তাদের শ্রেষ্ঠ পূজায় পরিণত হয়ে।

গত ১৭ ই অক্টোবর রোববার ফ্লোরিডার করেল স্প্রিংস শহরের রেমবেল উড ড্রাইভে ফ্লোরিডা হিন্দু বেঙ্গলি এসোসিয়েশনের উদ্যোগে লিটন মজুমদারের বাসভবনে মহাসমারোহে  সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা  অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত  অনুষ্ঠানে দক্ষিণ ফ্লোরিডা  সকল ধর্মের দকল ধর্ম বর্ণ পেশার  প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশগ্রহণ করেন।

এখানে পূজার সময় মন্দিরে ভক্তিমূলক গান, চণ্ডীপাঠ, অঞ্জলি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ভক্তদের শ্রদ্ধার্ঘ্য এবং সেই সঙ্গে প্রণাম, আশীর্বাদ ইত্যাদি দুর্গোৎসবকে ধর্মীয় আবেশে আনন্দঘন করে তোলে।

এবারের পূজা জাঁকজমকভাবে অনুষ্ঠিত হলেও বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে সংক্ষিপ্ত সমাবেশও করেন বক্তারা।

অতিথিরা বলেন  সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বাঙালির চিরকালীন ঐতিহ্য। সম্মিলিতভাবে এ ঐতিহ্যকে এগিয়ে নিতে হবে বাংলাদেশের সামগ্রিক অগ্রযাত্রায়। আবহমান বাঙালি সংস্কৃতিতে ঋদ্ধ অসাম্প্রদায়িক চেতনা, পারস্পরিক ঐক্য, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে উদ্বুদ্ধ করুক, বিশ্ব মানবতার জয় হোক।  তবে সেই প্রতিবাদকে ছাপিয়েও শারদীয় উৎসব আনন্দের রেশ ছড়িয়েছে সবার মনে। এসময় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাশাপাশি স্থানীয় প্রবাসী অন্যান্য ধর্মের অনুসারীরাও পূজামন্ডপ পরিদর্শন করেন এবং শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। পূজা উৎসব হয়ে ওঠে সার্বজনীন এক উৎসব।

মানবতাই ধর্মের শাশ্বত বাণী। ধর্ম মানুষকে ন্যায় ও কল্যাণের পথে আহ্বান করে, অন্যায় ও অসত্য থেকে দূরে রাখে, দেখায় মুক্তির পথ। তাই ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলার পাশাপাশি সবাইকে মানবতার কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে।

এফবিটিভির সিইও টিটন মালিকের আমন্ত্রনে ফ্লোরিডার নবনিযুক্ত কনসাল জেনারেল ইকবাল আহমেদ পুজা মন্ডপ পরিদর্শনে গেলে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। এটা নবনিযুক্ত কনসাল জেনারেলেও  প্রথম কোন সামাজিক সফর। পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও শুভেচ্ছা বিনিময়কালে কনসাল জেনারেলের সাথে ছিলেন এফবিটিভি সিইও টিটন মালিক,এফবিনিঊজ চেয়ারম্যান নাঈম খান দাদন ,এফবিনিঊজ সিওও আরশাদ আলী , বিএএসএফ সভাপতি এবিএম মোস্তফা , সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম , প্রবীন রাজনীতিবিদ সরকার হারুন ,লায়লা হারুন , এবিপেক সিইও ইমন করিম, ফ্লোরিডা স্টেট যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ খোরশেদ, নারী ফ্লোরিডা এর সভানেত্রী সোনিয়া খান , সহ সভানেত্রী রুবী আওলাদ , একতারা সিইও ইমরান জনি, বাংলাদেশ হিন্দু সোসাইটির অফ ফ্লোরিডার ফাঊন্ডার সাধন সরকার ,লিটন মজুমদার ,দুলাল কুন্ডু ,রতন বিশ্বাস , লিটন মজুমদার সহ অনেকে।

শনিবার সকাল ১০টায় ঘট স্থাপনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় হিন্দু বাঙালি সোসাইটি অব ফ্লোরিডার পূজা অর্চনা । পুরোহিত ইন্দ্রজিৎ ভট্টাচার্য ও অনিল মজুমদার সপ্তমী ও অষ্টমী ২ দিন ব্যাপী পূজার সব কার্যে দায়িত্ব পালন করেন। এসময় সহযোগিতায়  ছিলেন মঞ্জু সরকার, পলি সাহা, রিমা কুন্ডু, সুবর্না মজুমদার, মৌসুমী দত্ত, নিবেদিতা কুন্ডু, প্রিয়াংকা মজুমদার, পূর্ণিমা কুন্ডু, লিজা সরকার, শেলি মোদক, লাবনী সাহা, মেরি মজুমদার।

দুপুরের মহাপ্রাসাদ বিতরণের উদ্বোধন করেন ট্রাষ্টি কমিটির সভাপতি  সাধন সরকার, সভাপতি দুলাল কুন্ডু, মিল্টন মজুমদার, কৃষ্ণ সাহা, আনন্দ সাহা, দিলিপ মদক, ইন্দ্রজিত দাসগুপ্ত, নিকসন দে, চন্দন কুন্ডু।

রবিবার দুপুর ১টায় নবমী ও দশমীর পুজো শুরু হয় । পূজা শেষে প্রসাদ বিতরণ ও সন্ধ্যা আরতি, দেবী দুর্গাকে সিঁদুর দান এবং ভক্তিমূলক গানের আয়োজন করা হয়। এই পর্বের অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দেবজোতি সেন ও শার্মিলা ভট্টাচার্য।

পরে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন সাধন সরকার, রতন মজুমদার, দুলাল কুন্ডু, লিটন মজুমদার, সঞ্জয় সাহা, সঞ্জিব কুমার দে, কৃষ্ণ প্রসাদ দাশ, শ্রীবাশ দাশ, মানিক দাশ, অনুপ সরকার, দিলিপ মোদক, চন্দন কুন্ডু, চন্দন দাশসহ আরও অনেকে।

মহাপ্রসাদ বিতরণ ও প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি ঘটে এবারের দুর্গাপূজার জমকালো আয়োজনের।

Leave a Response