পাকিস্তানের কোচ হওয়ার দৌড়ে ওয়ালশও?

মিসবাহ-উল হকের হাতে নাকি নিয়োগপত্রটাই কেবল তুলে দেওয়া বাকি! এমনই খবর তো মিলছিল পাকিস্তান থেকে। মিসবাহ এখনো কোচ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে। আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদনও করেছেন। তবে তিনি একা নন; কোচ হওয়ার লড়াইয়ে আরও দুজনের নাম তুলে এনেছে পাকিস্তানের জিয়ো নিউজ। এঁদের একজন বাংলাদেশের সদ্য বিদায়ী বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। আরেক জন স্টার স্পোর্টসের ক্রিকেট বিশ্লেষক ডিন জোন্স। বিপিএল ও পিএসলেও কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা আছে এই অস্ট্রেলীয়র।

এই তিনজনের মধ্যে মিসবাহই সবচেয়ে এগিয়ে। যদিও মিসবাহকে কোচ করানো নিয়ে পাকিস্তানেই দুই ধরনের মত আছে। রমিজ রাজা তো খোলাখুলিই বলেছেন, মিসবাহ বড় রক্ষণাত্মক মানসিকতার। তবে মিসবাহর সুনাম ও বোর্ডের কর্তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক এই পদের জন্য তাঁকে এগিয়ে রেখেছে। তা ছাড়া টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে পিসিবি। এ ক্ষেত্রে মিসবাহ বিশেষ দক্ষতার অধিকারী, তা পিসিবির ক্রিকেট পরিচালক খোলাখুলিই বলেছেন। মিসবাহর এগিয়ে থাকার আরেকটি কারণ, এবার বিদেশি কোচের চেয়ে দেশি কোচের প্রতি বেশি আগ্রহ পিসিবির।

আমজনতার মধ্যে অবশ্য মিসবাহর চেয়ে বেশি জনপ্রিয় ডিন জোন্স। পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি লিগ পিএসএলে ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের হয়ে দুবার শিরোপা জিতেছেন। কখনোই জাতীয় দলের হয়ে কাজ না করলেও এই দুই শিরোপা জয় তাঁকে অনেক এগিয়ে রেখেছে। তা ছাড়া স্টার স্পোর্টসের ডাগআউটে তাঁর ক্রিকেট বিশ্লেষণও মুগ্ধতাজাগানিয়া।

পাকিস্তানের সম্ভাব্য কোচের তালিকায় আরেকটি নাম ওয়ালশ। বাংলাদেশের পেস বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করা ক্যারিবীয় কিংবদন্তি এবার মূল কোচের ভূমিকায় নিজেকে দেখতে চান। এ কারণে পাকিস্তানের ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন। পাকিস্তান দলের অন্যতম শক্তি তাদের অসাধারণ সব পেস বোলার। এখানে ওয়ালশ বড় ভূমিকা পালন করতে পারবেন বলে মনে করেন। যদিও বাংলাদেশের কোচ থাকার সময় পেসারদের গ্রাফটা উঁচুতে নিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়েছেন টেস্টের একদার সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি।

সাপোর্ট স্টাফদের ব্যাপারেও একটা ধারণা দিয়েছে জিয়ো। দুই দফায় জাতীয় দলের প্রধান কোচের ভূমিকা পালন করা ওয়াকার ইউনিস বোলিং কোচ হয়ে ফিরতে আগ্রহী। পিসিবি মনে করে ওয়াকার ও মিসবাহ মিলে দারুণ একটা কোচিং জুটি হয়ে উঠবে। ওয়াকার মূল কোচের প্রস্তাব পেলে যে সানন্দে গ্রহণ করবেন, সেটিও আকারে-ইঙ্গিতে জানিয়ে রেখেছেন। তবে কোচ হিসেবে আগের দুই দফায় তাঁর সঙ্গে পিসিবির অভিজ্ঞতা সুখকর ছিল না।

ঘরোয়া ক্রিকেটে কোচিং করে আলোচনায় আসা মোহাম্মদ আকরামকে নিয়েও ভাবছে পিসিবি। জাতীয় দলের বোলিং কোচের ভূমিকা পালন করা আকরাম পিএসএলে পেশোয়ার জালমির প্রধান কোচ ছিলেন। জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিও সামলেছেন। পিএসএলে জালমিকে নিয়ে তাঁর দারুণ সাফল্য পাকিস্তানকে ভাবাচ্ছে। মিসবাহর সঙ্গে তাঁর সম্পর্কও দারুণ, যেটি ওয়াকারের সঙ্গে হয়তো নেই। পাকিস্তানের ক্রিকেটে এই ব্যক্তিসংঘাতের ব্যাপারটিও মাথায় রাখতে হয়।

অন্যান্য আগ্রহী কোচদের মধ্যে আছেন ওয়ানডেতে প্রথম হ্যাটট্রিক করা জালালউদ্দিন, ইয়াসির আরাফাত, ফয়সাল ইকবাল, মোহাম্মদ ওয়াসিম।

Leave a Response