দুইশ মিলিয়ন ডলার ছাড়ালো ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’

শুরুতেই হলিউডের বক্স অফিস বাণিজ্যিক বিশ্লেষকরা ধারণা করেছিলেন, ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’ বড় সাফল্য পেতে যাচ্ছে। তাদের ধারণাই সত্যি হতে যাচ্ছে, বিশ্বজুড়ে দারুণ ব্যবসা করে চলেছে কোয়েন্টিন টারান্টিনো পরিচালিত সিনেমাটি।

এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’ আয় করেছে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডালার। এই নির্মাতার আগের সিনেমা ‘পাল্প ফিকশন’ মোট আয় করেছিল ২১২ মিলিয়ন এবং ‘ইনগ্লোরিয়াস বাস্টার্ডস’ আয় করে ৩১৬ মিলিয়ন ডলার।

‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’ মুক্তির পরপরই দর্শক ও বিশ্লেষকদের বেশ ভালো সাড়া পেয়েছে। হলিউড সিনেমার জনপ্রিয় একটি পোর্টালে মোট ৮৫ শতাংশ দর্শক এই সিনেমা নিয়ে ইতিবাচক রিভিউ দিয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, সিনেমাটি শেষ পর্যন্ত ৪০০ মিলিয়ন ডালার আয় করতে পারে।

হলিউডের একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে সিনেমাটি নির্মিত হয়েছে। এতে প্রথমবারের মতো একসঙ্গে পর্দায় হাজির হয়েছে সুপারস্টার লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও এবং ব্র্যাড পিট। সিনেমাটিতে আরও অভিনয় করেছেন আল পাচিনো, ড্যাকোটা ফ্যানিং, লুক পেরি, মারগট রবি, কুর্ত রাসেলের মতো তারকারা।

সিনেমাটির কেন্দ্রীয় দুই চরিত্র রিক ডাল্টন ও তার বন্ধু ক্লিফ বুথ চরিত্রে অভিনয় করেছেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও ও ব্র্যাড পিট। রিক ডাল্টনের প্রতিবেশী শ্যারন টাটের চরিত্রে রয়েছেন মারগট রবি।

১৯৬৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসের একটি প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত ‘ওয়ান্স আপন অ্যা টাইম ইন হলিউড’ নির্মিত। সিনেমাটিতে ষাটের দশকের শেষের হলিউডকে তুলে ধরেছেন টারান্টিনো। 

এর গল্পে দেখা যাবে, নবীন অভিনেতা রিক ডাল্টন আর তার বন্ধু ক্লিফ বুথ হলিউডে নিজেদের অবস্থান পাকাপোক্ত করার লড়াই শুরু করেন। তাদের প্রতিবেশী আমেরিকান অভিনেত্রী শ্যারন টাটেসহ আরও চারজন ১৯৬৯-এর গ্রীষ্মের শেষদিকে নির্মমভাবে খুন হন ম্যানসন পরিবারের হাতে। এই ম্যানসন পরিবারগোষ্ঠী গঠন করেন চার্লস ম্যানসন নামের কুখ্যাত এক খুনি। শোবিজে এক সময় আলোচিত ছিল এই হত্যাকাণ্ড ও পরিবার। 

Leave a Response