কত দিয়ে কিনতে পারবেন নতুন আইফোন?

এক সপ্তাহের মধ্যেই বাজারে নতুন আইফোনের ঘোষণা আসতে পারে। ১০ সেপ্টেম্বরে সম্ভাব্য নতুন আইফোন ঘিরে অনেকেরই আগ্রহ রয়েছে। মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল কুপারটিনোর অ্যাপল পার্কের স্টিভ জবস থিয়েটারে এবারের আয়োজন করেছে। এ অনুষ্ঠানটিকে প্রযুক্তি বিশ্বের স্মার্টফোন উন্মোচনের অন্যতম বড় আয়োজন হিসেবে ধরা হয়। ইতিমধ্যে এ অনুষ্ঠানের জন্য অতিথিদের কাছে আমন্ত্রণপত্র পাঠিয়েছে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ। নতুন আইফোন ঘিরে ইতিমধ্যে এর যন্ত্রাংশ, ফিচার ও দাম নিয়ে নানা গুঞ্জন চলছে। অ্যাপল অবশ্য ১০ তারিখের আগে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই বলছে না।

প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, এবারে তিনটি মডেলের নতুন আইফোনের ঘোষণা আসতে পারে। এগুলোকে বলা হতে পারে ‘আইফোন ১১’, ‘আইফোন ১১ প্রো’ ও ‘আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স’। এর মধ্যে আইফোন ১১ হবে আইফোন এক্সআরের পরবর্তী সংস্করণ, ১১ প্রো হবে এক্সএসের পররর্তী সংস্করণ আর এক্সএস ম্যাক্সের পরবর্তী সংস্করণ হবে ১১ প্রো ম্যাক্স। বাজারে নতুন আইফোনের ঘোষণা দেওয়ার পরপরই ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে এর আগাম ফরমাশ শুরু হবে। ২০ সেপ্টেম্বর থেকে বিক্রি শুরু হবে নতুন আইফোন।

ধারণা করা হচ্ছে, নতুন আইফোনের ক্ষেত্রে দাম বাড়াবে না অ্যাপল। ২০১৮ সালের আইফোনের দামের মতোই এবারের মডেলগুলোর দাম হতে পারে। এর অর্থ নতুন আইফোনের প্রারম্ভিক দাম হবে আইফোন ১১ এর ক্ষেত্রে ৭৪৯ মার্কিন ডলার, আইফোন ১১ প্রোর দাম দাম হবে ৯৯৯ মার্কিন ডলার আর প্রো ম্যাক্সের দাম হবে এক হাজার ৯৯ মার্কিন ডলার।

এবারের নতুন আইফোনে গত বছরের আইফোনের চেয়ে আকারে খুব বেশি তারতম্য হবে না। আইফোন এক্সআর, এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সের মতোই আকার থাকবে এবারের নতুন তিন ফোনের। তবে আগামী বছর অর্থাৎ, ২০২০ সালের আইফোন মডেলগুলোতে পরিবর্তন আসবে। এবারের আইফোনের মাপ হবে আইফোনে ১১ এর ক্ষেত্রে ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি এলসিডি স্ক্রিন, ১১ প্রোর ক্ষেত্রে ৫ দশমিক ৮ ইঞ্চি ওএলইডি স্ক্রিন আর ১১ প্রো ম্যাক্সের ক্ষেত্রে সাড়ে ছয় ইঞ্চি ওএলইডি স্ক্রিন। এতে শাটার রেজিসট্যান্ট প্রযুক্তিযুক্ত নতুন গ্লাস ব্যাক ব্যবহৃত হবে। এর ১১ প্রো ও প্রো ম্যাক্সের ক্ষেত্রে পেছনে নতুন ক্যামেরা সিস্টেম ব্যবহার করতে পারে অ্যাপল। গুঞ্জন রয়েছে, দুটি মডেলের আইফোন তিন ক্যামেরা সিস্টেম যুক্ত করবে অ্যাপল।

নতুন আইফোন এ১৩ প্রসেসর যুক্ত হবে। এ ছাড়া ফেসআইডি আরও উন্নত করবে তারা। ১১ প্রো ম্যাক্স সংস্করণটি অ্যাপল পেনসিল সমর্থন করবে।

অবশ্য, যাঁরা ৫জি সমর্থিত আইফোনের জন্য অপেক্ষা করছেন তাদের আরও এক বছর অপেক্ষাতেই রাখবে অ্যাপল। ধারণা করা হচ্ছে, চলতি বছর কোনো ৫জি মডেলের আইফোন আসবে না। ২০২০ সালে আইফোনে ব্যাপক পরিবর্তনের সঙ্গে ৫জি সংস্করণও আনার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে বর্তমানে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম স্মার্টফোন বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানটি।

Leave a Response