আহসান হাবিব প্রিন্সকে নিয়ে একাত্তরকে এক হাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী

রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ নৈশভোজ অনুষ্ঠিত হয়। ১ জুলাই থেকে শুরু হওয়া নতুন অর্থবছরের জন্য পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট এদিনই পাস হয়েছে। টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম বছরের প্রথম বাজেট এটি। আর অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামালের প্রথম বাজেট। রেওয়াজ অনুযায়ী বাজেট পাসের দিন অর্থমন্ত্রী নৈশভোজে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষদের আমন্ত্রণ জানান। প্রধানমন্ত্রী রাত ৮টা পরে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছে অতিথিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

প্রধানমন্ত্রী একসময় উপস্থিত বিজনেস বিটের সাংবাদিকদের সাথে কুশল বিনিময় করতে তাদে;র টেবিলের দিকে যান। এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেসরকারী টেলিভশন একাত্তর টেলিভিশনের সাংবাদিকদের খোজ করতে থাকেন। সেখানে উপস্থিত একাত্তর টেলিভশনের বিজনেস বিটের প্রধান আজিজুল ইসলাম মাখন এবং প্রতিবেদক কাবেরী মৈত্রেও প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের কাছে একাত্তর জার্নালের প্রযোজক আহসান হাবিব প্রিন্সের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত একাত্তরের সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন একাত্তরের প্রযোজক আহসান হাবিব প্রিন্স রাস্ট্রের সুনাম নষ্ট করার জন্য ফ্রান্স সরকারের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেছে। আহসান হাবিব প্রিন্সের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী একাত্তর টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান সম্পাদক মোজাম্মেল হক বাবুর সাথে কথা বলবেন বলেও জানান তিনি। সেই সাথে প্রিন্সকে দেশে ফিরিয়ে এনে রাস্ট্র বিরোধী কথার জন্য শাস্তির সম্মুক্ষিন করা হবে বলে জানান উপস্থিত কেউ কেউ।

সে সময় নৈশভোজে আরো অংশ নেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম ও মশিউর রহমান।

এছাড়া নৈশভোজে অন্যান্য মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, চিফ হুইপ, হুইপ, সংসদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধান, অ্যাটর্নি জেনারেল, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, পুলিশের আইজি, মুক্তিযোদ্ধা, ব্যবসায়ী নেতা ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা এবং ঊর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা অংশ নেন।

Leave a Response